অনার্স ১ম ও ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য কিছু কথা ।

অনার্স ১ম ও ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য কিছু কথা ।

অবশেষে প্রায় ১ বছর অপেক্ষা শেষে অনার্স চতুর্থ বর্ষ পরীক্ষা শেষ হলো।এখন সিরিয়াল ১ম বর্ষের।জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সেশন জট বন্ধের লক্ষ্যে এখন দ্রুতই পরীক্ষা শেষ করবে।সে ক্ষেত্রে মার্চের শেষে বা এপ্রিলের শুরুতেই ১ম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনা ৯০-৯৫%।কিছু দিনের মধ্যেই আসবে ফর্ম ফিলাপের নোটিশ।অন্যদিকে মে মাসের দিকে ২য় বর্ষের পরীক্ষার সম্ভাবনা প্রবল।অবশ্য জাবি উপচার্জের ভাষ্যমতে তার আগেও হতে পারে পরীক্ষা।

অনেকে হয়তো অটো পাশের কথা ভাবছেন।নিশ্চিত থাকেন,অটো পাশের ১% সম্ভাবনাও নেই।করোনার ভয়ঙ্কর চেহারার মধ্য দিয়েও যখন অটো পাশ দেয়নি এখনতো পরীক্ষা কার্যক্রম চলছে তাই পরীক্ষা হবে শতভাগ নিশ্চিত।মনে রাখবেন,রুটিন প্রকাশের পর ১ মাসেরও কম সময় পাবেন হাতে।তাই অন্য সকল চিন্তা বাদ দিয়ে পড়ায় মনোযোগ দেন।

পরীক্ষা হবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে,তাই এবার নিজের বল বাহুবল তত্ত্বে এগানোর পালা।যারা ভাবছেন রুটিন প্রকাশের পর পরিবর্তিত হবে তারা বর্তমান দ্বিতীয় বর্ষকে জিজ্ঞাসা করুন।গতবছর তারাও রুটিন পরিবর্তনের ব্যাপারে নিশ্চিত ছিলো তখন আমি পোস্টে বলেছিলাম রুটিন পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই,সবাই যেনো পড়ায় মন দেয়।তারা নির্ধারিত তারিখেই পরীক্ষা দিতে হয়েছিলো।তাই হাতে ১-১.৫ মাস সময় আছে ভেবে পড়তে বসে যান।

আর বিগত বছরের ন্যায় এ বছরও ইনশাআল্লাহ শীঘ্রই পরীক্ষার জন্য বিষয় ভিত্তিক শর্ট সাজেশন ও পরীক্ষায় লেখার নিয়মাবলি ও সময় বন্টন নিয়ে পোস্ট দিবো।সাথে ২য় বর্ষের যাদের বাধ্যতামূলক ইংরেজি আছে তাদের জন্যও কিছু টেকনিকের পোস্ট গুলো শীঘ্রই নিয়ে আসবো ইনশাআল্লাহ।

পরীক্ষা কাছে আসলে অনেকে টাকার বিনিময়ে শর্ট সাজেশন দেওয়ার আশ্বাস দেয়। ভুলেও এমন কারো ফাঁদে পা দিবেন না।অনেকেই শিক্ষার্থীদের উপকারের জন্য পোস্ট আকারে সাজেশন দিবে,তাদের গুলো ফলো করলেই উপকৃত হবেন।

Leave a Reply